দাগনভূঞায় কাঠমিস্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ


দাগনভূঞায় তপন চন্দ্র ভৌমিক (৫৫) নামের এক কাঠমিস্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। নিহতের স্বজনদের দাবি, সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জের ধরে তাকে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা। আজ বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলার দেবরামপুর গ্রামের মদন বেপারী বাড়িতে এ ঘটনা ঘটেছে।

নিহতের ছেলে রাজু ভৌমিক ও সঞ্জয় দেবনাথ জানান, দেবরামপুর গ্রামের নারায়ন চন্দ্র ভৌমিক গং ও তপন চন্দ্র ভৌমিকের সাথে দীর্ঘদিন যাবত সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। বিরোধীয় সম্পত্তি স্থানীয় আবদুল কুদ্দুছের নিকট বিক্রি করেন নারায়ন চন্দ্র ভৌমিক। ওইদিন সকালে সেখানে পাতা কুঁড়ানোর জন্য গেলে আবদুল কুদ্দুছের তপনের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ঘটনাস্থলে মারা যান তিনি।

নিহতের ছেলেরা অভিযোগ করেন, নারায়ন চন্দ্র ভৌমিক, বাবুল চন্দ্র ভৌমিক ও গণেশ চন্দ্র ভৌমিকের সহযোগিতায় কুদ্দুছ আমার বাবাকে হত্যা করেছে। লাশের সৎকার শেষে থানায় এজাহার দায়ের করবেন বলে জানিয়েছেন তারা।

তপনের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে এলাকায় ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। কেউ বলেছে তপন ভৌমিক ভয়ে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন, আবার কেউ বলেছেন, তাকে হত্যা করা হয়েছে।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইমতিয়াজ আহমেদ জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। ময়নাতদন্তের পর তার মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

মন্তব্যসমূহ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করুন

    কোনো মন্তব্য খুঁজে পাওয়া যায় নি

মন্তব্য করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।